রবিবার, ১৪ Jul ২০২৪, ০৩:০২ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
আজীবন সম্মাননা পেলেন জনাব ওসমান গণি ও শফিকুর রহমান মধু মিয়া বৃষ্টির ধারায় মুছে যাক “রোজা রাখি, আল্লাহর হুকুম পালন করি, নিজে সুস্থ থাকি অপরকে সুস্থ থাকতে উৎসাহিত করি” মঙ্গলকাটা কম্পিউটার ট্রেনিং সেন্টার ‘MCTC’র এক যুগ পূর্তিতে আনন্দ ভ্রমণ ফেনিবিল ও কোনাপাড়া সমাজকল্যাণ যুব সংঘের অমর একুশে উদযাপন ‘আব্দুল গণি ফাউন্ডেশন’ মেধাবৃত্তি পরিক্ষা-২২ এর বৃত্তি প্রাপ্তদের পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত নারায়ণতলা মিশন উচ্চ বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত সুনামগঞ্জের ডলুরা বর্ডারহাটে অনিয়ম ও মাদক বন্ধের দাবীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত তৃতীয় বারের মত অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো দাখিল ২০০৪ ব্যাচ এর মিলনমেলা কোনাপাড়া সমাজকল্যাণ যুব সংঘের শীত বস্ত্র বিতরণ

মথুরকান্দি-বাঘবেড়-চালবন্দ সড়কের বেহাল অবস্থা

মথুরকান্দি-বাঘবেড়-চালবন্দ সড়কের বেহাল অবস্থা

আকরাম উদ্দিন: 

বিশ্বম্ভরপুর ও সদর উপজেলার সাথে যোগাযোগের অন্যতম প্রধান সড়ক মথুরকান্দি-বাঘবেড়-চালবন্দ সড়ক। এখানকার গ্রাম-গঞ্জের মানুষের যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম এই সড়ক। সড়কের উন্নয়ন না হওয়ায় বিভিন্ন স্থানে সড়কের চিহ্ন নেই। ঢালাই উঠে বালু-পাথর আলাদা হয়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়েছে। ফলে বিভিন্ন স্থানে ছোট বড় একাধিক গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। সড়ক উন্নয়নের দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা এলজিইডি’র প্রকৌশলী ফজলুর রহমান তালুকদার জানান, মথুরকান্দি-বাঘবেড়-চালবন্দ সড়ক মেরামতের জন্য ৮০ লাখ টাকার দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে। এখনও কার্যাদেশ পাওয়া যায়নি। শীঘ্রই এই সড়কের ২ কিলোমিটার কার্পেটিং করার কাজ শুরু হবে।
জানা যায়, বিগত প্রায় ১০ বছর আগে মথুরকান্দি-বাঘবেড়-চালবন্দ সড়কে একবার সংস্কার কাজ হয়েছিল। এরপর আর কাজ হয়নি এই সড়কের। ফলে সড়কের বিভিন্ন স্থানে ছোট বড় একাধিক গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় যানবাহন চলাচলে নানা দুর্ঘটনা ঘটে চলেছে। প্রতিদিন এই সড়ক দিয়ে বাঘবেড় বাজার, মথুরকান্দি বাজার এবং জিনারপুর বান্দের বাজারে মানুষজন আসা-যাওয়া করেন এবং সবজি জাতীয় মালামাল এই সড়ক দিয়ে বিভিন্ন উপজেলার হাট-বাজারে পাঠানো হয়। এছাড়া চিনাকান্দি বাজার এবং জিগারতলা পয়েন্টের ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন গ্রামের মানুষও এই সড়ক দিয়ে বেশি চলাচল করে থাকেন।

এলাকাবাসী জানান, এই ভাঙা সড়কের উভয় পাশে চালবন্দ, আদাং, মথুরকান্দি, রতারগাঁও ও বাঘবেড় গ্রাম এছাড়াও এই সড়কের রয়েছে ১টি হাইস্কুল এন্ড কলেজ, ২টি প্রাইমারী স্কুল, ১টি আলীয়া মাদ্রাসা, ২টি হাফিজিয়া মাদ্রাসা ও ১টি এবতেদায়ী মাদ্রাসা। এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা প্রতিদিন এই সড়ক দিয়ে চলাচল করে থাকেন। পাকিজান গ্রামের নজরুল ইসলাম বলেন,‘এই সড়ক দিয়ে প্রায় পঁচিশটি গ্রামের মানুষ নিয়মিত আসা-যাওয়া করেন। কিন্তু সড়কটি মেরামত না হওয়ায় মানুষজনের ভোগান্তি চরমে পৌঁছেছে। সড়কের ধূলা-বালি নাকে মুখে ঢুকে, কাশি ও চর্মরোগে মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন।’

রতারগাঁও গ্রামের ইব্রাহীম আলী, মাছুম মিয়া ও দ্বীন ইসলাম বলেন,‘আমাদের বাড়ি-ঘর সড়কের পাশে। তাই প্রতিনিয়ত ধূলা-বালিতে ভোগান্তির শিকার হচ্ছি আমরা। সড়কটি সংস্কার হলে মানুষের ভোগান্তি যেমন কমতো, তেমনি ধূলা-বালির আক্রমণ থেকে বাঁচা যেতো।’

বিশ^ম্ভরপুর উপজেলা আ.লীগ সহ-সভাপতি মো. মহরম আলী বলেন,‘এই সড়কটি অতি প্রাচীন। এই সড়কের আশপাশে রয়েছে কয়েকটি বড় বড় বাজার, আছে হাইস্কুল ও কলেজ এবং একাধিক প্রাইমারী স্কুল। আছে ৪-৫টি মাদ্রাসা। এই সড়কটি সকল শ্রেণী পেশার মানুষের যাতায়াতের অতি গুরুত্বপূর্ণ সড়ক। এই সড়কের দ্রুত সংস্কার প্রয়োজন।’

বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা এলজিইডি’র প্রকৌশলী ফজলুর রহমান তালুকদার বলেন, ‘মথুরকান্দি-বাঘবেড়-চালবন্দ সড়ক মেরামতের জন্য ৮০ লাখ টাকার দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে। এখনও কার্যাদেশ পাওয়া যায়নি। শীঘ্রই এই সড়কের ২ কিলোমিটার কার্পেটিং করার কাজ শুরু করা হবে।’


আপনার এ্যাড দিন

ফটো গ্যালালি

Islamic Vedio

বিজ্ঞাপন ভিডিও এ্যাড




© All rights reserved © 2018 angina24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com